Friday, February 23, 2024
বাড়িSliderভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন সহযোগিতার একটি মাইলফলক

ভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন সহযোগিতার একটি মাইলফলক

উত্তরণ প্রতিবেদন: বাংলাদেশ ও ভারতের নিবিড় বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের আরেকটি মাইলফলক রচিত হলো। ভারত থেকে মৈত্রী পাইপলাইনের মাধ্যমে জ্বালানি তেল আনতে স্থাপিত ‘ভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন’ যৌথভাবে উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আসাম রাজ্যের নুমা লিগড় রিফাইনারির শিলিগুড়ি টার্মিনাল থেকে সীমান্তের বর্ডার অতিক্রম করে পার্বতীপুর ডিপোতে এই মৈত্রী পাইপলাইনের মাধ্যমে জ্বালানি তেল আনার কার্যক্রম গত ১৮ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভারত থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বোতাম টিপে বাংলাদেশ-ভারত এই মৈত্রী পাইপলাইন উদ্বোধন করেন। ১৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ এই মৈত্রী পাইপলাইনের মাধ্যমে বাংলাদেশে ডিজেল রপ্তানি করবে ভারত। প্রকল্পটি উদ্বোধন হওয়ায় কৃষিনির্ভর উত্তরাঞ্চলের ১৬টি জেলায় নিরবচ্ছিন্ন ডিজেল সরবরাহ সহজতর হবে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘ভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন দুদেশের উন্নয়ন ও সহযোগিতার ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক অর্জন উল্লেখ করে বলেছেন, আমি বিশ্বাস করি, এই ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন আমাদের দুই বন্ধুপ্রতিম দেশের মধ্যে সহযোগিতা উন্নয়নের একটি মাইলফলক। এটি বাংলাদেশের জ্বালানি নিরাপত্তা বৃদ্ধির পাশাপাশি অর্থনৈতিক বৃদ্ধি ত্বরান্বিত করবে এবং আমরা সারাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলেছি, আমি চাই ভারতের বিনিয়োগকারীরাও এখানে এসে আরও বিনিয়োগ করবে। আমরা দুদেশই তাতে লাভবান হব।
জবাবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রকল্পের উদ্বোধনকালে বলেন, এই বন্ধুত্বপূর্ণ পাইপলাইন দুদেশের সম্পর্কে নতুন অধ্যায় সূচনা করেছে। গত কয়েক বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অভূতপূর্ব অগ্রগতি অর্জন করেছে। এ নিয়ে প্রত্যেক ভারতীয় গর্বিত। বাংলাদেশের এই উন্নয়ন অভিযাত্রায় ভূমিকা রাখতে পেরে আমরা (ভারত) আনন্দিত। এই যৌথ প্রকল্প বাংলাদেশের সোনার বাংলা গড়ার ক্ষেত্রে উৎকৃষ্ট উদাহরণ।
ভারতীয় লাইন অফ ক্রেডিট (এলওসি) থেকে নেওয়া প্রায় ৩ দশমিক ৪৬ বিলিয়ন ভারতীয় রুপি ব্যয়ে নির্মিত ১৩১ দশমিক ৫ কিমি ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী পাইপলাইনের (আইবিএফপিএল) মাধ্যমে বাংলাদেশে ডিজেল রপ্তানি করবে ভারত। ভারতের শিলিগুড়ির নুমালীগড় রিফাইনারি থেকে ১৩১ দশমিক ৫০ কিলোমিটার পাইপলাইনে বাংলাদেশের দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর ডিপোতে ডিজেল আমদানি করা হবে। এর মধ্যে বাংলাদেশ অংশে পড়েছে ১২৬ দশমিক ৫৭ কিমি এবং ভারতের অংশে ৫ কিমি। পাইপলাইনটির হাই-স্পিড ডিজেল (এইচএসডি)-এর বার্ষিক পরিবহনের ক্ষমতা ১ মিলিয়ন মেট্রিক টন (এমএমটিপিএ)।

আরও পড়ুন
spot_img

জনপ্রিয় সংবাদ

মন্তব্য