Saturday, July 13, 2024

‘গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি চাই’

উত্তরণ প্রতিবেদন: ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাত প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘পাকিস্তানি দখলদার বাহিনী এই দিন থেকেই হত্যাযজ্ঞ শুরু করে। আমরা ২৫ মার্চকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি চাই। আমি জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’
শেখ হাসিনা গত ২৫ মার্চ সকালে আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় সূচনা বক্তব্যে এ-কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।
শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের ভয়াল রাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী নিরস্ত্র বাঙালির ওপর হামলা চালায়। তারা ৯ মাস ধরে হত্যাকাণ্ড চালিয়েছিল। সে-সময় ৩০ লাখ মানুষকে হত্যা এবং ঘরবাড়ি পুড়িয়ে ছাই করে দেওয়ায় আরও ৩ কোটি মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়ে। মোট ৭ কোটি মানুষের মধ্যে ৩ কোটি মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়ে এবং ১ কোটি মানুষ শরণার্থী হিসেবে ভারতে আশ্রয় নেয়।’
স্বাধীনতা-পরবর্তী পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ধ্বংসস্তূপ থেকেই রাষ্ট্র পরিচালনা শুরু করেছিলেন এবং যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি গড়ে তুলেছিলেন। জাতির পিতা তার ক্ষমতায় থাকার তিন বছর সাত মাসের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করেছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শুধু জাতির জনককেই নয়, ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের অভ্যন্তরে তার সহযোগী ও জাতীয় চার নেতাকেও নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। আমি বলতে চাই, শহিদদের রক্ত কখনও বৃথা যায় না। আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি এবং আজ আমরা একটি উন্নয়নশীল জাতির মর্যাদা অর্জন করেছি। বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে আমরা জাতির পিতাসহ শহিদদের প্রতি অঙ্গীকারবদ্ধ।’

আরও পড়ুন
spot_img

জনপ্রিয় সংবাদ

মন্তব্য